বিজিবির জন্য অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল কেনা হচ্ছে

0
46

২২৫ বছর পুরোনো সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বা বিজিপি । সময়ের সঙ্গে সঙ্গে দেশের সীমান্তে চ্যালেঞ্জ হয়ে দাড়িয়েছে নিরাপত্তার বিষয়টি । আধুনিক সরঞ্জামের সমন্বয়ে দুর্গম অঞ্চলে ও এখন অনায়াসেই কাজ করছে এই আধা সামরিক বাহিনীটি । সীমান্তের অতন্ত্র প্রহরী হয়ে দেশের সার্বভৌমত্ব প্রহরীর ফাস্ট লাইন হিসেবে সম্প্রিতি বিজিপি তে যোগ হয়েছে  ১২ টি আল্মারট পারসোনাল ক্যারিয়ার ১০ টি নতুন ভ্যাহিকল এবং ১২০ টি এটিভি সহ অত্যাধুনিক পেট্রলিক ভ্যাহিকল । আধুনিকায়নের ধারাবাহিকতায় এই বাহিনী তে যুক্ত হলো উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন একটি নতুন হেলিকপ্টার । এর মধ্যে দিয়ে বিজিপি পরিনত হলো ত্রিমাতৃক বাহিনী হিসেবে । গন ভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্স এ পিল খানায় যোগ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । বি ডি আর বিদ্রোহের ঘোটনা অনাকাঙ্ক্ষিত উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন এই বাহিনীর উন্নয়নে সার্বিক কাজ করছে বাংলাদেশ সরকার । প্রশিক্ষনের মাধ্যমে বিজিপি এর অপারেশন এর সক্ষমতা বাড়ানোর তাদিগ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী জানান বিধ্বংসী মিসাইল কিনার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে । যেহেতু বিজিপি একমাত্র বাহিনী যারা সীমান্তে নিয়োজিত তাই তাদের যা যা দরকার সব দিবে সরকার তাই জানিয়েছেন তিনি । তারা দেশকে নিরাপত্তা দিচ্ছেন তাদের নিরাপত্তার জন্য যতটুকু করা লাগে তা করা হবে । বিজিপি বরাবরই খুব ভাল ভাবে সফলতার সাথে সব চোরাকারবারি আর সংত্রাস দমন করতে সফল হওয়ায় তাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । তিনি এটিও বলছেন তোমাদের সিনিয়ররা যেই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটিয়েছিল তা যেন তোমরা না করো ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here