গাজীপুর চৌরাস্তা থেকে টঙ্গী পর্যন্ত এই রাস্তায় ভোগান্তির শেষ নাই

0
73

গাজীপুর চৌরাস্তায় রাত দিন অনেক চাপ থাকে যান বাহনের । প্রতিদিন এই চৌরাস্তা দিয়ে টঙ্গী হয়ে ঢাকায় যাওয়া আসা করেন উত্তরবঙ্গের রাজশাহী রংপুর ও বৃহত্তর ময়মনসিংহ এর হাজারো মানুষ । দীর্ঘ পথ পেরিয়ে গন্তব্য স্থল ঢাকা যখন একেবারে হাতের নাগালে ঠিক তখনই যাত্রীদের মুখোমুখি হতে হয় দুর্ভোগের । যাত্রীরা বলছেন তারা যেই সময়ে ময়মনসিংহ থেকে গাজীপুর চৌরাস্তা আসেন এখান থেকে প্রায় দুগুণ বেশি সময় লাগে ঢাকা যেতে । বৃষ্টি হলে শুরু হয় আরো ভোগান্তি রাস্তা ভাঙ্গা তাই বড় গাড়ী  গুলো যেমন বিপাকে পরে তেমনি ছোট গাড়ি গুলো ও বিপাকে পড়ে । একই সাথে আই রাস্তায় চলছে সম্প্রসারণ সংস্কার কাজ ও মেট্রো র‍্যাল এর নির্মাণ কাজ । কোথাও রাস্তার মাঝ খানে আবার কোথাও দুইপাশের স্তর অংশ ফেলে রাখা হয়েছে দীর্ঘ দিন । এতে রাস্তা ছোট ও সংকীর্ণ হয়ে যাওয়ায় যান বাহন চলাচলে দেখা দিয়েছে স্থবিরতা যা সৃষ্টি হচ্ছে যানজটে আর ভোগান্তির কারণ হচ্ছে সাধারণ মানুষের । মাত্র গাজীপুর চৌরাস্তা থেকে ঢাকার এই ১৩ কিলোমিটার রাস্তা পাড়ি দিতেই সময় লাগছে দেড় থেকে দুই ঘন্টা । বাস চালকরা বলছেন একই তো ভাঙ্গা রাস্তা তার উপর অটো লেগুনা এগুলোর জন্য তাদের গাড়ি চালাতে আরো কষ্ট হয় । তারা বলছে নির্মাণ কাজের জন্য যে রাস্তা দুই পাশ থেকে কাটা হয়েছে তার জন্য রাস্তা আরো ছোট হয়েছে এর ফলে যেই জায়গায় যেতে সময় লাগে ২০ মিনিট যেখানে লাগতেছে প্রায় ১ ঘন্টা । উত্তরা এয়ারপোর্ট থেকে জয়দেবপুর পর্যন্ত উন্নয়ন কাজ শুরু হয় ২০১৮ সালে কজা শুরু পর এই রাস্তার টঙ্গী ব্রিজ থেকে গাজীপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত ক্রমে ক্রমেই ভয়াবহ হয়ে উঠে । ধুলাবালি বা খানা খন্দে শুধু যাত্রী বা চালকরাই নন দুপাশের বসবাসরত মানুষ ও অতিষ্ট । তারে জানিয়েছেন প্রচুর ধুলা ময়লা এর কারনে নাক দিয়ে নিঃশ্বাস নেয়া যায় না । ধুলাবালির জন্য প্রবীন লোক অসুস্থ হয়ে পরতেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা । কিছু অটো চালক জানিয়েছেন এই রাস্তায় গাড়ি চালালে খুব তাড়াতাড়ি গাড়ি নষ্ট হয়ে যায় । এই রাস্তার বেহাল দশায় অসুতষ্ট গাজীপুরের সিটি মেয়র নিজেই । তিনি বলছেন প্রজেক্টটি যে ডিজাইন করেছে তার ডিজাইন এ একটি ভুল রয়েছে এবং ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এর গাফিলতেই এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে । ৩ বছর হয়ে গেলেও তারা এখনো একটি রোড ও সম্পূর্ণ করতে পারে নাই । এ বিষয়ে কথা বলার জন্য সংশিল্ট কাজের প্রকল্প ম্যানাজার এর সাথে যোগাযোগ করতে চাইতে তিনি ক্যমেরা এর সামনে আসতে চান নি । রাস্তা সম্প্রসারণ ও সংস্কার কিংবা অবকাঠামো নির্মাণ এর জন্য রাজপথে কিছুটা দুর্ভোগ হতেই পারে সেটি মেনেও নেন সাধারণ মানুষ । কিন্তু এসব কাজে যখন অতি মাত্রায় কাজ দীর্ঘ হয় তখনই বাড়ে দুর্ভোগ দেখা দেয় নানান প্রশ্ন । গাজীপুর চৌরাস্তা থেকে টঙ্গী পর্যন্ত যেই সীমাহীন দুর্ভোগ তা লাঘবে অতি দ্রুতই ব্যবস্থা নেয়া হবে এমনটাই আশা সাধারণ মানুষের ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here