Take a fresh look at your lifestyle.

সফলতা অর্জনের ১০ টি কৌশল

0

আলোকিত মানুষ হওয়ার প্রস্তুতি পর্ব হচ্ছে ছাত্র জীবন । ছাত্রজীবনে আলোকিত মানুষ হওয়ার প্রস্তুতি যেভাবে গ্রহণ করা যায় জীবনে অন্য কোন পর্যায়ে এসে সেভাবে সম্ভব হয়ে উঠে না । জীবনে আলোকিত ও সফল হতে হলে আপনার যা করণীয়ঃ

১.স্বপ্নের হাঁটুর সঙ্গে হাঁটুনঃ আপনি কখনই সফল হতে পারবেন না, যদি আপনি আপনার কাজকে না ভালোবাসেন । প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠুন ভালোবাসার কাজটি করার রোমাঞ্জ নিয়ে । যারা ভালোবাসার কাজটি করে সময় পার সময় পার করে তারা তাদের জীবনটা সবচেয়ে বেশি উপভোগ করে । তাদেরই মূলত সাহস আছে সেই স্বপ্নের পেছনে হাটার এবং ঝুঁকি নেওয়ার । এ প্রসঙ্গে প্রথিতযশা ধনকুবের ওয়ারেন বাফেটও একমত । তিনি বলেছেন যে কোনো কাজে সফল হতে হলে সে কাজের প্রতি আসক্তি বা ভালবাসা থাকতে হবে।

২.ভালো কাজ করুনঃ আপনি যদি মানুষের জন্য ভাল কিছু করতে না পারেন তবে নিজের ব্যবসাতেও কিছু করা সম্ভব হবে না । এটা শুধু নিজের ব্যক্তি জীবনের ক্ষেত্রে নয় নিজের প্রতিষ্ঠানের জন্য এটা প্রয়োজন । যেমন বলা হয় একটি কিনলে আরেকটি ফ্রি সেরকম এক জোড়া কিনলে আপনি আরেক জোড়া দান করুন সাম্প্রতিক সময়ে অনেক প্রতিষ্ঠানই এ নীতিতে কাজ করে ।

৩.আস্থা রাখুনঃ আপনি যদি নিজের কাজ নিজে সমর্থন করতে না পারেন তাহলে অন্য কেউই আপনাকে সমর্থন করবে না । আপনি যদি আপনার আইডিয়া নিয়ে গর্বিত হতে না পারেন কিংবা আপনার পরিকল্পনা বিশ্বাস করতে না পারেন তবে অন্য কেউ কেন আপনার আইডিয়া কে সমর্থন করবে বিশ্বাস করবে? এমন কোন প্রতিষ্ঠান আপনি তৈরি করবেন না যেটি আপনি ভালোবাসেন না কিংবা যার প্রতি আপনার আগ্রহ নেই । আপনার যদি কোন প্রতিষ্ঠানে থেকে বেরিয়ে যাওয়ার কিংবা বন্ধ করে দেওয়ার পরিকল্পনা থাকে তবে বুঝতে হবে ওই প্রতিষ্ঠানের প্রতি আপনার ভালোবাসা নেই ।

৪.।আনন্দে থাকুনঃ এটা অনেকেই হয়তো মানবেন না কিন্তু বিশ্বাস করুন আনন্দ করা আনন্দে থাকা হচ্ছে যেকোনো কাজে সফল হওয়ার অন্যতম নিয়ামক । আপনি যদি কোন কাজে আনন্দ না পান তবে আপনার উচিত অন্য কোন কাজ করা । এই আনন্দে থাকার ধারণাই আপনাকে সফল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করবে ।

৫.হতাশা নয়ঃ নতুন ব্যবসা শুরু বেলুন করে বিশ্ব ভ্রমন কিংবা নৌকায় করে সাগর পাড়ি রোমাঞ্চকর যে কোনো ক্ষেত্রেই এমন কিছু মুহূর্ত আসে যা হতাশ করে দিতে পারে । ওই মুহূর্তে আপনি লড়াই করে যাবেন । এসব মুহূর্তে সাফল্য পেতে নিজেকে তাড়িত করবেন । এটা ব্যক্তিগত বা কর্মময়জীবন সব ক্ষেত্রেই প্রযমময় । যেকোনো সাফল্যের জন্য একাগ্রতার সঙ্গে কাজ করতে হবে । পরিশ্রম ছাড়া আপনার প্রতিভা কিছুই না । অর্থাৎ পরিশ্রমের মাধ্যমে আপনার প্রতিভাকে কাজে লাগাতে হবে ।

৬. নতুন চ্যালেঞ্জ নিনঃ ভাবনাগুলো যদি লিখে না রাখেন সকাল না হতেই সেগুলো হারিয়ে যেতে পারে । ভাবনাটা ছোট হোক বা বড় হোক লিখে ফেলুন তারপর সেগুলো বাস্তবায়নের জন্য নিজের প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিন । কারণ আপনি জানেন না কোনটি কাজে দেবে কোনটি কাজে লেগে যাবে ।

৭. প্রতিনিধি তৈরি করুনঃ আমি একা করতে পারব না অনেক উদ্যোক্তার জন্য এটা মেনে নেওয়া কঠিন । কিন্তু এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ । যেকোনো কাজ আপনি একা করতে পারেন না । সেটার জন্য একটা জুতসই লোক খুঁজে পেলে আপনার কাজ সহজ হয়ে যায় । তখন আপনি ভবিষ্যতের পরিকল্পনার প্রতি মনোনিবেশ করতে পারবেন । কাজটা আপনার চেয়ে ভালো আর কেউ পারবেনা এটা ভাবা ধরনের মূর্খতা । মনে রাখবেন পৃথিবীতে মেধাবী লোকে ভরপুর । এটা ভাববেন না যে আপনি হাত না দিলে কাজটা ঠিকঠাক মত হবে না । যারা আপনার সঙ্গে কাজ করে তাদের উপর ভরসা রাখুন । একেই বলে প্রতিনিধি তৈরি করা এর মাধ্যমে আপনি ভাল ফল পাবেন ।

৮. দলের অভিভাবক হনঃ আপনার সাফল্যের পাশাপাশি আপনার দলের মানুষের সাফল্য গুরুত্বপূর্ণ । দলের সদস্যদের সৃজনশীল ভাবনাকে স্বাগত জানানো । আপনার কর্মীরা যদি আনন্দের সঙ্গে কাজ করতে পারে একে অপরকে সাহায্য করতে পারে তবে আপনি ভাল কাজ করতে পারবেন । এমন কিছু কর্মী খুঁজে বের করুন যারা অন্যদের থেকে পরিশ্রমী । কর্মীদের বেশি সমালোচনা করা থেকে বিরত থেকে এবং তাদের ভালবাসেন । তারা যে কাজটি করে সেটিও ভালবাসুন ।

৯. বিরতি দিনঃ সাফল্য রোমাঞ্জ নিজে থেকেই আপনার হাতে এসে ধরা দেবেনা । আপনাকে খুঁজে বের করতে হবে । সাফল্যের জন্য এই অনুসন্ধান চালাতে না পারলে আপনাকে একটি পর্দার সামনে বসে কাটাতে হবে । প্রতিদিন একইভাবে কিংবা কম্পিউটার চালু কিংবা বন্ধ করতে জীবন শেষ হয়ে যাবে ।  এ কর্মময় জীবনে মাঝে মাঝে বিরতি দিন এতে আপনি জীবনে শক্তি সঞ্চয় করতে পারবেন তাই মাঝে মধ্যে বেরিয়ে এসে বিশ্বকে দেখুন ।

১০. মানুষের ভুল ভাঙ্গুনঃ আপনার সম্পর্কে বাজে কথা বলছে তখন কিছু না বলে কাজ করুন । প্রমাণ করে দিন তারা ভুল বলছে । সমালোচনা গ্রহণ করার জন্য সবসময় নিজেকে তৈরি রাখুন । আপনার সাফল্য অনেকেই বাঁকা চোখে দেখবে এ সংকট উত্তরণের সবচেয়ে ভালো উপায় হল এদের উপেক্ষা করা তবে এটা আপনাকে প্রমাণ করতে হবে যে তারা যা বলছেন ভুল বলছেন ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.